GEOGRAPHY T-20

 

MGI GEOGRAPHY T-20

 

1. কারেওয়া (Karewa) :

ঝিলাম এবং তার বিভিন্ন উপনদী গুলো দ্বারা প্রাচীনকাল থেকে বয়ে আনা হিমালয়ের ক্ষয়জাত পদার্থের সঞ্চয়ের ফলে গঠিত জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের কাশ্মীর উপত্যকার প্রাচীন মৃত্তিকা যুক্ত স্থান বিশেষ কে কারেওয়া বলে I এই ভূমি ভাগ প্রাচীন পলি মৃত্তিকা সমৃদ্ধ, অনুর্বর ও মালভূমিময় I অঞ্চলটি স্বল্পোন্নত কৃষি বৈশিষ্ট্যযুক্ত I এর বিস্তার প্রায় 5,200 বর্গ কিঃমিঃ I

কাশ্মিরি ভাষায় “Karewa” শব্দের অর্থ হলো “elevated table-land” “উত্থিত মালভূমি”। এই শব্দটি প্রথম 1859 সালে British Army general Alfred Reade Godwin-Austen (1889-1963) দ্বারা ব্যবহৃত হয় I

 

2. Asian Brown Cloud :-

বিশ্ববিখ্যাত “Nature” পত্রিকার মতে ভারত মহাসাগরীয় আকাশে সৃষ্ট তাপ শোধনকারী এবং তাপ বিকিরণকারী কণা সমৃদ্ধ এক প্রকারের বিশেষ মেঘ হল Asian Brown Cloud. একটি গবেষণায় দেখা গেছে এই বাদামি মেঘের আশেপাশে বায়ুমণ্ডলের উষ্ণতা অন্যান্য বায়ুমণ্ডলীয় অংশের তুলনায় 50% বেশী I

UNEP Indian Ocean Experiment (INDOEX) এ প্রথম Asian Brown Cloud শব্দবন্ধটি ব্যবহার করা হয় I 1999 সালে Indian Ocean Experiment দ্বারা প্রথম ব্যাপক ভাবে এই মেঘের অধ্যায়ন করা হয় যা 2002 সালে UNEP impact assessment study তে Ramanathan ও Veerabhadran দ্বারা “The Asian brown cloud climate and other environmental impac” নামক গবেষণাপত্রে প্রকাশিত হয় I

NASA 2004 ও 2007 সালে এ সমন্ধে বিশদে রিপোর্ট প্রকাশ করে I

 

3. Nuclear Holocaust :-

যান্ত্রিক ত্রুটি বা মানুষের অসাবধানতা বশত পরমাণু চুল্লিতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সময় যদি পরমাণু বিস্ফোরণ হয় তবে উৎপন্ন আগুন ও তেজস্ক্রিয় রশ্মি সঙ্গে সঙ্গে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে ব্যাপক অগ্নিকাণ্ড ঘটায়, এরুপ ঘটনাকে নিউক্লিয়ার হলোকাস্ট বলে I

অন্যভাবে বলা যায় পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের মাধ্যমে তেজস্ক্রিয় বিকিরণ দ্বারা ব্যাপক ধ্বংসলীলা চালিয়ে সভ্যতার পতন ঘটানোর একটি তাত্ত্বিক দৃশ্যকল্প হলো নিউক্লিয়ার হলোকাস্ট।

1926 সালে যুক্তরাজ্যের লেখক Captain Reginald Glossop তার বিখ্যাত উপন্যাস “The Orphan of Space: A Tale of Downfall” এ “Holocaust” শব্দটি ব্যবহার করেন এবং U.S. President George Bush 2007 সালে তাত্ক্ষণিক ভাবে পরমাণু ধ্বংস বোঝাতে “Nuclear Holocaust” শব্দটি ব্যবহার করেন I

1986 সালের 26 এপ্রিল ইউক্রেনের Pripyat শহরের নিকট চেরনোবিলে Chernobyl Nuclear Power Plant এর No. 4 light water graphite moderated reactor এ এরুপ ঘটনার ফলে প্রায় তিন হাজার বর্গ কিমি এলাকা ধ্বংস হয় I

 

4. সোনালি চতুর্ভূজ (Golden Quadrilateral Project – GQ Project) :

1999 সালের জানুয়ারীতে the National Highways Authority of India এর প্রচেষ্টায় দিল্লী-মুম্বাই-চেন্নাই-কলকাতা দেশের এই চার মহানগরকে (Delhi–Kolkata: NH 19, Delhi–Mumbai–Chennai: NH 48 এবং Kolkata–Chennai: NH 16) সড়কপথ দ্বারা সংযুক্ত করার যে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় তা সোনালি চতুর্ভূজ নামে পরিচিত I

এর উদ্দেশ্য হল i. অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য বৃদ্ধি; ii. জাতীয় ও রাজ্য সড়ক পথের গুরুত্ব বৃদ্ধি; iii. দেশের সার্বিক উন্নয়ন; iv. অর্থনৈতিক পরিকাঠামো সুদৃঢ় করন করা ইত্যাদি I

2006 সালে প্রকল্প শেষ করার পরিকল্পনার মধ্য দিয়ে ততকালীন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী 6 January 1999 এ 5,846 kilometres (3,633 mi) দীর্ঘ ভারতের বৃহত্তম এবং বিশ্বের পঞ্চম দীর্ঘতম এই প্রকল্পটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন I

প্রকল্পটির চারটি সড়কপথের A. 1,453 km (903 mi) দীর্ঘ Delhi–Kolkata সড়কপথ; B. 1,290 km (800 mi) দীর্ঘ Chennai–Mumbai সড়কপথ এবং C. 1,419 km (882 mi) দীর্ঘ Mumbai–Delhi সড়কপথ 31 August 2011 তে সম্পূর্ণ রূপে প্রস্তুত হয় এবং অবশিষ্ট D. 1,684 km (1,046 mi) দীর্ঘ Kolkata–Chennai সড়কপথ 31 May 2013 তে সম্পূর্ণ হয় I 7January 2012 ভারত সরকার 5,846 km (3,633 mi) দীর্ঘ এই প্রকল্প সম্পূর্ণ হয়েছে বলে ঘোষণা করে I

 

5. Geostationary Sattelite

যদি কোন কৃত্রিম উপগ্রহের পরিক্রমণ কাল 24 ঘন্টা বা পৃথিবীর আহ্নিক গতির পর্যায়কালের সমান হয় তবে উপগ্রহটি পৃথিবীর সাপেক্ষে কাজ করে, এরূপ উপগ্রহকে জিও স্টেশনারি উপগ্রহ বলে I নিরক্ষীয় অঞ্চলের নিকটবর্তী স্থানে পৃথিবী থেকে প্রায় 36000 কিঃমিঃ দূরত্বে উপগ্রহগুলি পৃথিবীর পশ্চিম থেকে পূর্বে আবর্তন করছে I

Indian Space Research Organisation (ISRO) June 19, 1981 তে ভারতের প্রথম geostationary satellite উৎক্ষেপণ করে যা APPLE নামে পরিচিত I

‘Geosynchronou Satellite’ ধারণার প্রস্তাব করেন Slovene rocket engineer and pioneer of astronautics Herman Potočnik 1928 সালে এবং তা 1945 সালে প্রসিদ্ধ করে তোলেন বৃটিশ science fiction author Sir Arthur Charles Clarke তার “Wireless World” লেখার মধ্য দিয়ে I

American electrical engineer তথা “the father of the geostationary satellite”, and “father of the communications satellite” Harold A. Rosen প্রথম Syncom 2 নামক সফল geosynchronous satellite প্রস্তুত করেন I বিশ্বের প্রথম geostationary communication satellite হলো Syncom 3 যা 1964 সালের 19 সে August , Cape Canaveral থেকে Delta D #25 launch vehicle দ্বারা উৎক্ষেপণ করা হয় I

6. Break of Bulk :- 

 

শিল্প-বাণিজ্যে “ব্রেক অফ বাল্ক” একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান I ভূ-প্রকৃতির বিভিন্নতা ও পরিবহন ব্যবস্থা গুলির বৈচিত্রের জন্য এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে হলে বারে বারে পরিবহন মাধ্যম বদল করতে হয়, যাত্রাপথে যেখানে গাড়ি বদল বা বিরতি বাধ্যতামূলক সেই স্থান “ব্রেক অফ বাল্ক” নামে অভিহিত I

ঐসব স্থানে মাল ওঠা-নামার খরচের জন্য পরিবহন ব্যয় বেড়ে যায় এবং সময় বেশি লাগে যা শিল্পে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে I অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় বর্ধিত মূল্য ও সময় সাশ্রয়ের জন্য উক্ত স্থানে শিল্প গড়ে ওঠে I

যেমন হলদিয়া শিল্পাঞ্চল, জলপাইগুড়ি শিল্পাঞ্চল I

কলকাতা থেকে দার্জিলিং রেলপথে যেতে নিউ জলপাইগুড়ি ব্রেক অফ বাল্ক এর ভূমিকা পালন করে I

 

7. রাশিবিজ্ঞান (Statistics) :

যে বিজ্ঞান সংখ্যাগত তথ্যের সংগ্রহ, উপস্থাপনা, বিশ্লেষণ ও তার ব্যাখ্যা সম্বন্ধে আলোচনা করে তাকে রাশিবিজ্ঞান বলে I রাশিবিজ্ঞান হলো ব্যবহারিক ভূগোলের একটি শাখা I

জার্মান লেখক Jakob Friedrich von

Bielfeld 1770 সালে প্রকাশিত “The Elements of Universal Erudition” গ্রন্থে প্রথম ‘Statistic’ শব্দ ব্যবহার করেন এবং অষ্টাদশ শতাব্দীর ইউরোপে পরিসংখ্যানগত ধারণাগুলির বিস্তার করেন ।

বৃটিশ রাশি বিজ্ঞানি Sir Ronald Aylmer Fisher কে 1925 সালে প্রকাশিত তার লেখা “Statistical Methods for Research Workers” গ্রন্থের জন্য রাশি বিজ্ঞানের জনক বলা হয় I

ভারতের প্রখ্যাত রাশি বিজ্ঞানি প্রশান্তচন্দ্র মহলানবিশ কে ভারতের রাশি বিজ্ঞানের জনক ধরা হয় I তিনি 17 December 1931 এ কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে Indian Statistical Institute স্থাপন করেন I

 

8. Pearl Culture :-

সামুদ্রিক অগভীর উপকূলীয় অঞ্চলে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করে বাণিজ্যিকভাবে মুক্তা প্রজননকারী ঝিনুক চাষের মাধ্যমে তা থেকে মুক্তা সংগ্রহ করার পদ্ধতিকে পার্ল কালচার বলে I পার্ল কালচারের ক্ষেত্রে জাপান বিশ্বে অগ্রণী ও বিশ্বে প্রথম স্থান অধিকারী দেশ I বর্তমানে চীন, কোরিয়া, ভারত সহ অন্যান্য বিভিন্ন দেশের উপকূল অঞ্চলে ইহার প্রচলন বেড়ে চলেছে I

1907 সালে জাপানি Marine biologist Dr. Tokichi Nishikawa এবং জাপানি Carpenter Tatsuhei Mise প্রথম ঝিনুক থেকে মুক্তা তৈরির কৌশল আবিষ্কার করেন I এর পর জাপানি উদ্যোক্তা (Entrepreneur) Mikimoto Kōkichi সর্বপ্রথম 1916 সালে Nishikawa’s technology ব্যবহার করে তার “uxury pearl company Mikimoto” সংস্থার মাধ্যমে প্রথম সফল পার্ল কালচার আরম্ভ করেন I

9. পল্লীপাড়া (Hamlet) :

গ্রামের শেষ প্রান্তে অবস্থিত বা গ্রাম থেকে সামান্য দূরত্বে তথাকথিত সমাজের অস্পৃশ্য শ্রেণীর জনবসতি অধ্যুষিত বসতিকে পল্লীপাড়া বা হ্যামলেট বলে I এই ধরনের বসতি অনেক সময় প্রধান গ্রামের অংশ হিসেবে বিবেচিত হয় I পল্লী পাড়ায় 4-5 থেকে কুড়ি পঁচিশ টি বাড়ির সমাবেশ দেখা যায় I

প্রাচীন ফরাসি শব্দ ‘Hamel’ থেকে ‘Hamlet’ শব্দের উতপত্তি I

ভারতের এরুপ জন বসতি রাজস্থান ও হরিয়ানা তে ‘ধানী’ বা ‘থোক’; গুজরাটে ‘নেসাদা’, মহারাষ্ট্রের ‘পাড়া’, বিহারে ‘বিঘা’ ইত্যাদি স্থানীয় নামে পরিচিত I

10. White Revolution:

উন্নত বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে চিকিৎসা বিজ্ঞান ও জিন তত্ত্বের সাহায্যে পৃথিবীতে দুগ্ধ ও দুগ্ধ জাতীয় দ্রব্যের পরিমান বৃদ্ধির বৈপ্লবিক পরিবর্তন কে শ্বেত বিপ্লব বলে I বর্তমানে গবাদিপশুর সংকরায়ন ঘটিয়ে নতুন সংকর প্রজাতির গবাদি সৃষ্টি,চারণভূমির বৃদ্ধি, উন্নত প্রোটিন যুক্ত পশুখাদ্য এবং আধুনিক চিকিৎসা দ্বারা পরিচর্যার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী শ্বেত বিপ্লবের জোয়ার এসেছে I

1970 সালে, ভারতে National Dairy Development Board (NDDB) এর তত্বাবধানে বিশ্বের বৃহত্তম dairy development program ‘Operation Flood’ মধ্য দিয়ে ভারতে শ্বেত বিপ্লবের সূচনা হয় গুজরাটের আনন্দ এ I

ভারতে শ্বেত বিপ্লবের জনক ডঃ ভার্গিস কুরিয়েন (Dr.Verghese Kurien) যার মস্তিস্ক প্রসূত “billion-litre idea” ভারতে দুগ্ধ উৎপাদনের বিপ্লব আনে I

11. Pantograph :

নকশা, চার্ট বা মানচিত্রের আকার পরিবর্তনের কাজে ব্যবহৃত দুটি ছোট বাহু, দুটি বড় বাহু ও ফালক্রম সমন্বিত এক ধরনের বিশেষ যন্ত্র হলো পেন্টোগ্রাফ I

এর সাহায্যে মানচিত্র কে চার বা পাঁচ গুণ ছোট বা বড় করা যায় I এর চারটি বাহু কে নির্দিষ্ট স্কেল অনুযায়ী স্থাপন করলে যে সামন্তরিক তৈরি হয় তার ছোট বাহু ও বড় বহুর ছেদ বিন্দুর স্থানান্তরের অনুপাত ফালক্রম থেকে ওই দুইটি বাহুর দূরত্বের সমান হয় I

বাভারিয়ান অ্যাস্ট্রোনট Christoph Scheiner 1603 সালে প্রথম এই যন্ত্রের উদ্ভাবন করেন I তার এই আবিষ্কারের কথা এবং যন্ত্রটির বিস্তারিত বর্ণনা করেন 1631 সালে প্রকাশিত তার “Pantographice” নামক গ্রন্থে I

12. Sustainable Development:

যে দীর্ঘমেয়াদি, সামগ্রিক ও বাস্তব উন্নয়ন ব্যবস্থা এর মাধ্যমে প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অবস্থায় মানুষের সার্বিক, আর্থ-সামাজিক উন্নতি সম্ভব করা যায় তাকে স্থিতিশীল উন্নয়ন বলে I রবার্ট রিপিটোর মতে “যে উন্নয়ন পদ্ধতির মাধ্যমে বৈদেশিক ঋণের বোঝা থেকে ভবিষ্যৎ নাগরিকদের মুক্ত করে ভবিষ্যৎ ও বর্তমান প্রজন্মের দক্ষতা, মানবিক গুণাবলির শ্রীবৃদ্ধি এবং সম্পদের অবনমন ও সংকটাপন্ন অবস্থার উন্নয়ন ঘটানো যায় তাকে স্থিতিশীল উন্নয়ন বলে I

ইউরোপীয় কৃষিবিদ Eva Balfour এবং আমেরিকান কৃষিবিদ Wes Jackson “Sustainable Development” কথাটি চয়ন করেন এবং 1990 সালে World Conservation Strategy এর মাধ্যমে ধারণাটি বিশ্বের দরবারে উন্মোচিত হয় I Rio De Janerio তে 1992 সালে অনুষ্ঠিত UN conference on Environment and Development এ ধারণাটিকে গুরত্ব সহকারে গ্রহণ করা হয় I

13. Eco-labelling :

পরিবেশের পক্ষে কম ক্ষতিকর পণ্যের উৎপাদন ও ব্যবহার বৃদ্ধির জন্য পৃথক পৃথক পণ্যের নির্দিষ্ট পরিবেশগত প্রভাব সম্পর্কে একটি নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে পৃথক পরিচিতি প্রদানকে ইকো লেবেলিং বলে I

জার্মানি 1977 সালে প্রথম ইকো লেবেলিং কর্মসূচির সূচনা করে যা “Blue Angel” নামে পরিচিত I 1989 সালে কানাডা, জাপান ও নরওয়ে এই প্রকল্প গ্রহণ করে I 1993 সালে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই প্রকল্প গ্রহণ করে I

ভারত সরকার 1991 সালে Central Pollution Control Board (CPCB) দ্বারা প্রথম Eco-labelling ব্যবহার করে যা ‘Eco-mark’ নামে পরিচিত I ভারতের ক্ষেত্রে বিভিন্ন পণ্যের জন্য বিভিন্ন ইকো লেবেল ব্যবহার হয়; যেমনঃ শিল্প দ্রব্যের জন্য ISI mark, খাদ্য দ্রব্যের জন্য FPO mark, কৃষিজাত দ্রব্যের জন্য Agmark, মোটর যানবাহনের জন্য Non Polluting Vehicle mark, গহনা দ্রব্যের জন্য BIS hallmark ইত্যাদি I

 

সংগ্রহ করুন দুই হাজার পাঁচশো এর অধিক ভৌগোলিক সাল এর সংগৃহীত ইবুক “ভৌগোলিক সালানুক্রম”

 

14. সাগর সম্রাট (Sagar Samrat) :

মুম্বাই হাই অঞ্চলের সমুদ্রগর্ভ থেকে খনিজ তেল উত্তোলনকারী ভাসমান প্লাটফর্ম হলো সাগর সম্রাট I এটি ভারতের তথা খনিজ তেল উত্তোলনকারী ভারতীয় সংস্থা Oil & Natural Gas Corporation (ONGC) এর প্রথম খননকারী রিগ I

1973 সালে জাপানি কোম্পানি Mitsubishi এটি নির্মাণ করে I 1974 সালে মার্চ মাসে ONGC দ্বারা মুম্বাই হাই তৈলক্ষেত্রে সাগর সম্রাটকে তৈল কূপ খনন ও তৈল উত্তোলনের কাজে লাগানো হয় I

দীর্ঘ 35 বছরের কর্মযজ্ঞে সাগর সম্রাট 125 টি কূপ খনন করে এবং 14 টি বৃহৎ সঞ্চয় ক্ষেত্র আবিষ্কার করে ভারতকে খনিজ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস দ্বারা সমৃদ্ধ করে চলেছে I এর খনন গভীরতা 18,000 ফুট বা 5,486 মিটার I 2095 সালে এটি ভয়ঙ্কর অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হয় I ভারতের 1 টাকার নোটে সাগর সম্রাটের প্রতিকৃতি রয়েছে I

15. Vernalization :

যে ব্যাপক কৃষি পদ্ধতিতে বিজ্ঞান ভিত্তিক প্রযুক্তি, উন্নত বীজ, আধুনিক রাসায়নিক কীটনাশক সার ও ওষুধের ব্যবহার করে ফসলের সময় কালকে সংকুচিত করে দ্রুত ফসল উত্তোলন করা হয় সেই কৃষি পদ্ধতি কে ভার্নালাইজেশন বলে I

Russian geneticist Trofim Lysenko 1928 সালে “jarovization”শব্দটি চয়ন করেন এবং পরবর্তী সময়ে তিনি শব্দটিকে “vernalization” হিসাবে অনুবাদ করেন I vernalization মডেল হিসাবে Arabidopsis thaliana (“thale cress”) নামক সপুষ্পক উদ্ভিদের উপর সর্বাধিক আলোচনা হয় I

এই পদ্ধতি মূলতঃ শীত প্রধান দেশ গুলিতে 5 ডিগ্রি থেকে 10 ডিগ্রি উষ্ণতায় বিশেষ করে মেরু অঞ্চলে এই কৃষি পদ্ধতির প্রচলন অধিক লক্ষ্যনীয় I এর মাধ্যমে প্রধানতঃ ফুলের চাষ করা হয় I “vernalization” এর সংজ্ঞা প্রসঙ্গে French botanist Pierre Chouard বলেন “the acquisition or acceleration of the ability to flower by a chilling treatment” .

16. Globalization :

দীর্ঘমেয়াদী এবং স্থিতিশীল উন্নয়নের জন্য বিশ্বের উন্নত, উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলোর মধ্যে প্রাকৃতিক ও মানসিক অন্তঃসম্পর্কের ভিত্তিতে বিশ্বজুড়ে যে অর্থনৈতিক, প্রযুক্তিগত মুক্ত বাণিজ্যের বিকাশ ঘটেছে তাকে বলা হয় বিশ্বায়ন I 1960 এর দশকে উদারনৈতিক মুক্ত বাণিজ্যের পথ ধরে বিশ্বায়নের সূচনা হয় I Oxford dictionary of Geography এর মতে “Globalization is the concept of the interaction of natural and human phenomena of global scale”.

American economist Theodore Levitt 1983 সালে “Harvard Business Review” এ প্রকাশিত তার “The Globalization of Markets”নামক আর্টিকল এ আধুনিক অর্থে জনপ্রিয় করে তোলেন I

1990 এর দশকে ভারতীয় অর্থনীতিতে ভারতের ততকালীন অর্থ মন্ত্রী Dr. Manmohan Singh দ্বারা Globalization সূচিত হয় এবং এর ব্যপক প্রভাব পড়ে I যার প্রভাবে Special Economic Zones এবং Export Processing Zones এর ক্ষেত্র প্রস্তুত হয় I

17. International Cartel :

যে সামগ্রিক ব্যবস্থায় একচেটিয়াভাবে উৎপাদিত কোন পণ্যের উৎপাদক সংস্থা অন্তর্ভুক্ত রাষ্ট্রসমূহ ওই পণ্যের জোগান কে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রেখে তাদের নিজের যৌথ মুনাফার পরিমাণ বৃদ্ধি করতে সমর্থ হয় সেই ব্যবস্থাকে আন্তর্জাতিক কার্টেল বলে I যেমন ওপেক অন্তর্ভুক্ত দেশ গুলি অপরিশোধিত খনিজ তেলের মূল্য নির্ধারণে সক্ষম I

আমেরিকান খনি বিশেষজ্ঞ Francis Marion Smith 1899 সালে আন্তর্জাতিক বাজারে Borax এর মূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য “Borax Consolidated Limited” নামক একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা স্থাপন করে যা সম্ভবতঃ বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক কার্টেল I এর পর বিভিন্ন সময়ে বিশ্বে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কার্টেল গড়ে ওঠে ; যেমনঃ 1925 সালের The Radio-Equipment Cartel, 1926 সালের International Potash Cartel, 1930 সালের Electrical Equipment Cartel, 1929 সালের The International Steel Cartel ইত্যাদি I

বিশ্বের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক কার্টেল হলো Organization of the Petroleum Exporting Countries (OPEC) যা 1960 সালে Iran, Iraq, Kuwait, Saudi Arabia এবং Venezuela পাঁচটি দেশ দ্বারা গঠিত হয় I বর্তমানে এই কার্টেলের সদস্য দেশের সংখ্যা 15 টি I OPEC বিশ্বের উত্পাদিত খনিজ তেলের 44% সঞ্চিত তেলের 81.5% কে নিয়ন্ত্রণ করে বিশ্বের খনিজ তেল বাজার দর নিয়ন্ত্রণ করে I

18. শিবালিক নদী বিন্যাস তত্ব :

হিমালয় নদী বিন্যাস ব্যাখ্যার অন্যতম তত্ব হলো শিবালিক নদী বিন্যাস তত্ব I এই তত্বের প্রবক্তা পিলগ্রিম এর মতে i) শিবালিক স্তর থেকে নদীগুলো টারশিয়ারি যুগে উত্তর-পূর্ব আসাম থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমে গাঙ্গেয় সমভূমি বরাবর সিন্ধু খাতে পতিত হতো I ii) পরবর্তী সময়ে ভূমিরূপের পরিবর্তনের ফলে সম্পূর্ণ প্রবাহটি তিনটি ভাগে বিভক্ত হয় এবং পশ্চিমে সিন্ধু, মধ্যভাগে গঙ্গা এবং পূর্বে ব্রহ্মপুত্র নদী প্রবাহের সৃষ্টি হয় I iii) প্লিস্টোসিন পর্বে পাটোয়ারী মালভূমি (দিল্লি রিজ) সহ পশ্চিম হিমালয়ের উত্থানের ফলে সিন্ধু ও গঙ্গার বিভাজন ঘটে এবং সিন্ধু পশ্চিমে প্রবাহিত হয় I iv) পরবর্তীকালে আরাবল্লী পর্বতের অভ্যুত্থানের ফলে ঢালের পরিবর্তনের সাথে সাথে নদীর গতিপথেরও পরিবর্তন ঘটে এবং গঙ্গা পূর্বমুখী হয় I v) মধ্য প্লিস্টোসিন পর্বে রাজমহল পর্বত ও মেঘালয় মালভূমির মধ্যবর্তী মালদা গ্যাপ অঞ্চল বসে গিয়ে গঙ্গা ও ব্রহ্মপুত্র দুটি খাতে প্রবাহিত হতে থাকে I

ভারতে কর্মরত ইংরেজ জিওলজিস্ট তথা Superintendent of the Geological Survey of India; Guy Ellcock Pilgrim তার “New Siwalik Primates and Their Bearing on the Question of the Evolution of Man and the Anthropoidea” (1913) লেখায় এই তত্ব ব্যখ্যা করেন I পিলগ্রিমের এরূপ ব্যখ্যা শিবালিক নদী বিন্যাস নামে অভিহিত I

ভারতে কর্মরত অপর ইংরেজ জিওলজিস্ট Sir Edwin Hall Pascoe 1919 সালে Geological Society দ্বারা প্রকাশিত ত্রৈমাসিক জার্নালের “The Early History of the Indus, Brahmaputra, and Ganges” নামক আর্টিকেলে উল্লেখ করেন যে টারশিয়ারি সময় কালে ব্রহ্মপুত্র ও গঙ্গা নদী একই খাতে পশ্চিম মুখে আরব সাগরে পতিত হত I যা পিলগ্রিম এর তত্বকে সমর্থন করে I

19. Ecological Nche :

কোন নিবাস বা অনুনিবাসে বসবাসকারী জীবের তথা যে কোন প্রজাতির বৃত্তি, পেশা বা কার্যকলাপ সমন্বিত মর্যাদা কে ইকোলজিক্যাল নিচ্ বলে I অধ্যাপক এ. কে. আলমের ভাষায় “কোন বাস্তব্য ধারার কোনো বিশেষ অঞ্চল বা কোন বিশেষ প্রাণীর জীবনধারার উপযুক্ত পরিবেশ কে বাস্তব্য কন্দর বা বাস্তু কুলুঙ্গি বলে” I

সম্ভবতঃ 1917 সালে আমেরিকান জীববিদ Joseph Grinnell তার “The niche relationships of the California Thrasher” নামক গবেষণাপত্রে প্রথম “Nche” শব্দটি ব্যবহার করেন I যদিও 1910 সালে আমেরিকান প্রজননবিদ Roswell Hill Johnson শব্দটি চয়ন করেন I

Charles Sutherland Elton “Animal Ecology” নামক গ্রন্থে 1927 সালে “Nche” কে আধুনিক অর্থে সংজ্ঞায়িত করেন এবং 1957 সালে বৃটিশ ইকোলজিস্ট George Evelyn Hutchinson তার “Cold Spring Harbor Symposia on Quantitative Biology” নামক গ্রন্থে “Nche” ধারণাকে জনপ্রিয় করে তোলেন I

20. TSUNAMI :

সমুদ্র কম্প বা ভূ -গাঠনিক প্রক্রিয়ায় সৃষ্ট তীব্র গতি সম্পন্ন সাগর তরঙ্গ কে সুনামী বলে l সাধারণত সাগর তলে অবস্থিত ভুকম্পের উপকেন্দ্র থেকে ভূকম্পন শক্তি সাগরের জলে সঞ্চারিত হয়ে সুনামীর আবির্ভাব ঘটায় l ইহা উচ্চ শক্তি যুক্ত তরঙ্গের সূচক l

‘Tsunami’একটি জাপানি শব্দ l যার ব্যুৎপত্তি গত অর্থ হল ‘Tsu’=’Harbour’ বা ‘বন্দর ‘এবং ‘Nami’=’Waves’ বা ‘তরঙ্গ‘ l 2004 সালে 26 শা ডিসেম্বর ভারতীয় ও বর্মা পাতের সংঘর্ষের ফলে বিগত দশকের ভয়ংকর সুনামী সৃষ্টি হয় l

আমেরিকান ভাষাতত্ত্ববিদ Benjamin Zimmer “TSUNAMI” শব্দটির উৎস প্রসঙ্গে দেখান যে 1896 সালের 15 ই জুন জাপানের হোনডু উপকূলে সংঘটিত সামুদ্রিক জলোচ্ছাস এর বর্ণনা প্রসঙ্গে National Geographic Magazine (VOL VII; September 1896) এর সেপ্টেম্বর সংখ্যায় আমেরিকান লেখিকা Eliza Ruhama Scidmore ইংরাজী প্রতিশব্দ হিসাবে “Tsunami” শব্দটি ব্যবহার করেন I জাপানি লেখক Patrick Lafcadio Hearn 1897 সালে প্রকাশিত তার “Gleanings from Buddha Fields” নামক গ্রন্থে “TSUNAMI” শব্দটি ব্যবহার করেন I

MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING

(প্রস্তুতির নিখুঁত পরিকল্পনা)

********

MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING

_(প্রস্তুতির নিখুঁত পরিকল্পনা)_

*********************************

টপিক অনুযায়ী পড়ুন এবং নিজেকে যেকোন পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত করুন।

*******************************

বর্তমান MGI SLST Geography Online Coaching এর সদস্য সংখ্যা 200+ আপনিও টপিক ভিত্তিক আলোচনার সুযোগ নিতে পারেন

MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING, MEMBERSHIP NOW
==========================

বিজ্ঞপ্তি আসছে, কিন্তু তার অপেক্ষায় বসে না থেকে SLST Geography তে নিজেকে এগিয়ে রাখতে এবং ব্যাস্ত সময়েও চুপিসারে নিজের প্রস্তুতি পর্ব শৃঙ্খলাবদ্ধ ভাবে চালিয়ে যেতে এক অনন্য বিকল্প উপায় MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING. নির্দিষ্ট লক্ষ্যে নিখুঁত প্রস্তুতির জন্যই MGI এর এই ঐকান্তিক পরিকল্পনা।

অবহেলা না করে একটু এগিয়ে থাকাই ভালো।

প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী সম্ভাবনা মানেই “MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING”

MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING, MEMBERSHIP NOW

বিশদে জানতে যোগাযোগ করুন :-

9735337699/8640890159 (WhatsApp) নম্বরে

MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING

সামগ্রিক পরিকল্পনা

*********************************

মোট টপিক ➡ 146

মোট SAQ প্রশ্নোত্তর ➡ 146X50 = 7,300 (NO REPEAT)

মোট MOCK TEST ➡ 50 [11 টি বিষয় ভিত্তিক (প্রশ্ন থাকবে 30 টি করে) এবং 39 টি সামগ্রিক (প্রশ্ন থাকবে 55 টি করে); সমস্ত প্রশ্ন MCQ TYPE; মোট প্রশ্নোত্তর 330+2,145 = 2,475]

SAQ ও MCQ সহ মোট প্রশ্নোত্তর ➡ 7,300+2,475 = 9,775

(NO REPEAT, ZERO ERROR)

টপিক বিভাগ নিম্নরূপ

1. Geotectonic :- 8 টি টপিক

2. Geomorphology :- 14 টি টপিক

3. Thought :- 8 টি টপিক

4. Climatology :- 16 টি টপিক

5. Biogeography :- 14 টি টপিক

6. Environment Geo. :- 14 টি টপিক

7. Economic Geo :- 20 টি টপিক

8. Human Geography :- 14 টি টপিক

9. Regional Geo. of India :- 20 টি টপিক

10. Oceanography :- 08 টি টপিক

11. Cartography :- 10 টি টপিক

বর্তমান সদস্য সংখ্যা 200 + ; আপনি এখনো যুক্ত হয়ে না থাকলে যুক্ত হতে পারেন MGI SLST GEOGRAPHY ONLINE COACHING এ

GEOGRAPHY T-20 PDF টি ডাউনলোড করুন এখান থেকে 👇👇

GEOGRAPHY T-20

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!