জনসংখ্যা ভূগোলের সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর ll Population Geography Short Answer Questions Part-2

 

জনসংখ্যা ভূগোলের সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর
(দ্বিতীয় পর্ব)
============================

প্রথম পর্বের প্রশ্নোত্তরগুলি পড়ুন এখান থেকে

21. উন্নত দেশগুলির জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার কম কেনো ?
উত্তর> জাপান,ইউ এস এ, বৃটেন এবং ইউরোপের উন্নত দেশগুলোর জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার 0.7-1.2% কারণ :-i. সার্বজনীন শিক্ষা প্রসারের জন্য অধিক জন সচেতনতা, ii. অধিক পরিমাণে মাথা পিছু গড় ও জাতীয় আয়, iii. উন্মুক্ত কামুকতার প্রাধান্য, iv. শিল্প প্রধান অর্থনীতি, v. বিভিন্ন ধরনের সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক প্রভাব ইত্যাদি I

22. উন্নয়নশীল দেশগুলোতে জন বৃদ্ধির হার অধিক কেনো ?
উত্তর> ভারত, বাংলাদেশ; দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া; আফ্রিকা; ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলিতে জন বৃদ্ধির হার অধিক (1.3-3%) এর কারণ হল :- i. শিক্ষার সামগ্রিক হারের সাথে নারী শিক্ষার অভাবে কম সচেতনতা, ii. অনুন্নত জীবনযাপন পদ্ধতিতে পুত্র সন্তানের তীব্র আকাঙ্ক্ষা, iii.যৌথ পরিবার পরিকল্পনা ও একান্নবর্তী পরিবারের প্রাধান্য iv. স্বল্প বয়সে বিবাহ প্রথা ও স্বল্প মর্যাদায় নারীর সামাজিক অবস্থান, v. দূর্বল ও কৃষি প্রধান অর্থনীতি ইত্যাদি I
পুঞ্জিত ক্ষয় সম্পর্কে পড়ুন এখান থেকে

23. ভারতে জন বৃদ্ধির কারণ কী ?
উত্তর> ভারত পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম জনবহুল দেশ এরূপ জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ হল :-A. অধিক জন্ম হার (26/1000 জন), B. কম মৃত্যূ হার (0.9%),C. স্বল্প শিক্ষার হার (74.04%), D. কম বয়সে বিবাহ ঝোঁক (গড় 16 বছর), E. প্রজননক্ষম তরুণ জনসমষ্টি (57% জনসংখ্যার বয়স 16-59 বছর), F. অধিক বৈদেশিক অনুপ্রবেশ, G. মেয়েদের স্বল্প সামাজিক মূল্য, H. দারিদ্রতা,শিক্ষা বিস্তারের স্বল্পতা ও কম সচেতনতা, পুত্র সন্তানের আকাঙ্ক্ষা, ধর্মীয় বিধিনিষেধ ইত্যাদি i **(উপাত্ত পরিবর্তনশীল)

24. ভারতের জনসংখ্যা নীতি 2000 সমন্ধে টিকা লিখ I
উত্তর> 2000 সালের ফেব্রুয়ারীতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সভায় অনুমোদিত এবং 1994 সালের এম.এস.স্বামীনাথনের নেতৃত্বে গঠিত ভারতীয় জনসংখ্যা নীতি নির্ধারণ কমিটির গৃহীত নীতিগুলি হল -A. 2045 নাগাদ দেশের জনসংখ্যাকে স্থিতিশীলতা প্রদান, B. 2010 এর মধ্যে বৃদ্ধি হার 11.75% এ কমিয়ে আনা, C. পরিকল্পনা মাফিক ‘ছোট পরিবার সুখী পরিবার’ কে বাস্তবায়িত করা, D. স্ত্রী ভ্রূণ হত্যা নিষিদ্ধ করা ও শিশু মৃত্যূ হার হ্রাস করা, E. বিবাহ ব্যবস্থায় বিধিনিষেধ আনা ও জন্ম নিরোধ ব্যবস্থায় জোর দেওয়া ইত্যাদি I

পর্যায়ণ সম্পর্কে পড়ুন এখান থেকে

বৃষ্টির জল সংরক্ষণ সম্পর্কে পড়ুন এখান থেকে

25. বয়স লিঙ্গ অনুপাত কাকে বলে ?
উত্তর> কোন দেশের মোট স্ত্রী ও পুরুষের সংখ্যাকে বয়সের শ্রেণী অনুসারে প্রকাশ করা হলে ঐ বিস্তৃতিকে বয়স-লিঙ্গ অনুপাত বলা হয় I সমগ্র জনসংখ্যাকে সাধারনত 1-6, 6-14 14-20, 21-60, এবং 60 বছর ও তার বেশী বয়স এই পাঁচটি ভাগে ভাগ করা হয় I এই সমস্ত শ্রেণীগুলির আনুপাতিক শতাংশের উপর ভিত্তি করে জনসংখ্যার গঠণ ব্যাখ্যা করা হয় I

26. বয়স লিঙ্গ অনুপাত গুরুত্বপূর্ণ কেনো ?
উত্তর> বয়স-লিঙ্গ অনুপাতের গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলি হল – i) ইহা 1-6 ও 6-14 বছর বয়সের স্ত্রী ও পুরুষ, শিশু ও কিশোর-কিশোরীর সংখ্যা, কর্ম অক্ষম জনসংখা ও শিশুর অনুপাতকে প্রদর্শন করে I ii) কর্মক্ষম জনসংখ্যার অনুপাত থেকে ঐ দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা বোঝা যায় I iii) 14-20 ও 20-60 বছর বয়স্ক জনসংখ্যার উপর ভিত্তি করে দেশের কর্মক্ষম শ্রমিকের সংখ্যা জানা যায় I

বিভিন্ন প্রকার অর্থনৈতিক কার্যাবলী সম্পর্কে পড়ুন এখান থেকে

27. নারী পুরুষ অনুপাত কাকে বলে ?
উত্তর> কোন দেশের জনসংখ্যায় নারী ও পুরুষের বন্টনকে লিঙ্গ অনুপাত বলে I সাধারনত প্রতি হাজার পুরুষে (ক্ষেত্র বিশেষে একশোয়) নারীর সংখ্যাকে নারী-পুরুষ অনুপাত বা লিঙ্গানুপাত বলে I ইহা লিঙ্গ ভিত্তিক সমাহারের সংখ্যা পরিমাপের ভিত্তি I 2011 সালের আদমশুমারি অনুসারে ভারতে লিঙ্গানুপাত হল 1000:940 জন I

28. জনসংখ্যা পিরামিড কাকে বলে ?
উত্তর> জনসংখ্যার স্ত্রী-পুরুষ সংযুক্তি তথা জনসংখ্যার লিঙ্গ, বয়স ভিত্তিক গঠণ বিন্যাস লেখচিত্রাকারে উপস্থাপন করাকে জনসংখ্যা পিরামিড বলে I এথেকে মোট জনসংখ্যা, পুরুষ জনসংখ্যা অনুপাত, স্ত্রী জনসংখ্যা অনুপাত সমন্ধে ধারণা পাওয়া যায় I পিরামিডের ভূমি অক্ষ স্ত্রী-পুরুষ সংখ্যা এবং লম্ব অক্ষ বয়সের শ্রেণীবিভাগ নির্দেশ করে I বিভিন্ন কারণে ইহা পরিবর্তনশীল I

29. বয়স- লিঙ্গ পিরামিড কাকে বলে ?
উত্তর> কোন দেশ বা অঞ্চলের নাগরিকের বয়স অনুসারে লিঙ্গানুপাতের জন্ম মৃত্যুর আয়তন ও গঠণ বিন্যাস যে লেখচিত্রের সাহায্যে প্রকাশ করা হয় তাকে বয়স-লিঙ্গ পিরামিড বলে I ইহা বয়স বিশ্লেষণের অন্যতম সূচক I পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বয়স-লিঙ্গ পিরামিড কাঠামো ভিন্ন I

30. উন্নত দেশের জনসংখ্যা পিরামিডের পরিকাঠামোর প্রধান বৈশিষ্টগুলি লিখ I
উত্তর> উন্নত দেশসমূহের পিরামিড পরিকাঠামোর প্রধান বৈশিষ্ট হল – i) জনসংখা পিরামিডের ভূমি অপ্রস্তুত ও মধ্যাংশ স্ফীত হয় I ii) জন্মহার নিয়ন্ত্রিত হওয়ায় শিশু ও কিশোর জনসংখ্যার চাপ অধিক থাকে I iii) শিশু মৃত্যূ কম হওয়ায় উপার্জনশীল জনসংখা বেশী হয় I iv) মাথাপিছু উত্পাদন ও আয় বেশী হয় I v) উপার্জনহীন জনগণের দ্বায়িত্ব বহণ করতে উপার্জনশীল জনগণের কষ্ট হয় না I



আপনি আগামি SLST Geography পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ? তাহলে আপনি নিঃসন্দেহে যুক্ত হয়ে যেতে পারেন MGI SLST Geography Online Coaching ব্যবস্থার সাথে I

নিয়মিত ভাবে বাড়িতে বসে উচ্চ মানের স্টাডি ম্যাটেরিয়াল সহ মক টেস্ট এবার আপনার হাতের মুঠোয় I বর্তমানে MGI SLST Geography Online Coaching 200 + সদস্য, আপনিও এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারেন I

বিশদে জানতে ও মেম্বারশীপ নিতে ক্লিক করুন নিচের লিঙ্কে 👇👇

MGI SLST Geography Online Coaching, Membership



31. জনসংখ্যা গঠনে কোন কোন উপাদানগুলি কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ করে ?
উত্তর> যেসমস্ত উপাদান দ্বারা জনসংখ্যার গঠণ নির্ধারিত হয় সেগুলি হল – i) জন্ম ও মৃত্যূ হার; ii) স্ত্রী ও পুরুষের অনুপাত; iii) বয়স ও লিঙ্গ ভিত্তিক জনসংখ্যার অনুপাত; iv) জনসংখ্যার পরিমাণের হার ও প্রকৃতি ইত্যাদি I

32. উন্নয়নশীল দেশের জনসংখ্যা পিরামিডের বৈশিষ্টগুলি লিখ I
উত্তর> যে লেখচিত্রের সাহায্যে বয়স অনুযায়ী বয়স অনুযায়ী স্ত্রী পুরুষ ভেদে জনসংখ্যা বোঝানো হয় তাকে জনসংখ্যা পিরামিড বলে I উন্নয়নশীল দেশে এর বৈশিষ্ট হল :-i) পিরামিডের নীচের দিক স্ফীত এবং মধ্যভাগ কম স্ফীত যা শিশু ও অল্প বয়স্কদের প্রাধান্যতা ও 15-49 বছরের মানুষের স্বল্পতার কথা বলে I ii) পিরামিডের উপরের অংশ ক্রমশঃ সরু হতে থাকে I iii) সামগ্রিক নির্ভরশীলতা সহায়ক নয় I iv) জন্মহারের তুলনায় মৃত্যুহার কম ও প্রৌঢ় মৃত্যুহার বেশী I

33. উন্নত ও অনুন্নত দেশের জনসংখ্যা পিরামিডের পার্থক্য লিখ I
উত্তর> i) উন্নত দেশের পিরামিডের ভূমি অপ্রশস্ত ও মধ্যাংশ স্ফীত হয়, যেখানে অনুন্নত দেশের পিরামিড ভূমি প্রসারিত ও শীর্ষদেশ সংকুচিত হয় I ii) উন্নত দেশের পিরামিডে নিয়ন্ত্রিত শিশু জন্মহারের জন্য জনসংখ্যার চাপ কম থাকলেও অনুন্নত দেশের ক্ষেত্রে তা বেশী I iii) শিশু মৃত্যুহার কম হওয়ায় উপার্জনশীল জনসংখ্যা উন্নত দেশের পিরামিডে বেশী, যা অধিক শিশু মৃত্যুর জন্য অনুন্নত দেশের জনসংখ্যা পিরামিডে কম I

34. অপ্রাপ্ত বয়স্ক নির্ভরশীল জনসংখ্যার অনুপাত কি ?
উত্তর> কোন দেশের সাধারণতঃ 15 বত্সরের নিম্ন উপার্জন হীন বালক বালিকা উপার্জনশীল জনসংখ্যার উপর যে অনুপাতে নির্ভরশীল তাকে অপ্রাপ্তবয়স্ক নির্ভরশীল জনসংখ্যার অনুপাত বলে I ইহা yd = Pu – 15/PoV – 15 সূত্রানুসারে প্রকাশ করা হয় ; যেখানে yd = অপ্রাপ্তবয়স্ক নির্ভরশীল জনসংখ্যার অনুপাত, Pu – 15 = 15 বছরের কম বয়সের জনসংখ্যা এবং PoV = 15 বছরের বেশী বয়স্ক জনসংখ্যা I

35. শিশু মৃত্যূ হার কি ?
উত্তর> প্রতি 1000 জন 1 বছর বয়সের জীবিত শিশু প্রতি কোন বছর যতো সংখ্যক 1 বছর বয়স্ক শিশু মারা যায় তাকে শিশু মৃত্যূ বলে I কোন জাতির সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নয়নের অবস্থা শিশু মৃত্যুর হার থেকে জানা যায় I উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশে শিশু মৃত্যূ হার অধিক I

36. প্রকৃত জন্মহার বলতে কী বোঝ ?
উত্তর> কোন দেশের জন্মহার থেকে মৃত্যু হার বাদ দিলে যে অবশিষ্ট জনসংখা থাকে তাকে প্রকৃত জন্মহার বলে I ইহা দেশের আর্থসামাজিক অবস্থার উপর নির্ভরশীল I আদর্শ জন্মহার কোন দেশকে উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছতে সাহায্য করে, আবার অধিক জন্ম হার কোন দেশের উন্নতিতে বাধা স্বরূপ I প্রকৃত জন্মহারের পরিমাণ দেশের আদর্শ অবস্থার সূচক I



MGI এর প্রচেষ্টায় ভূগোল বিষয়ে এই প্রথম 2500 + সালের সংকলন যুক্ত ইবুক “ভৌগোলিক সালানুক্রম” আপনি সংগ্রহ করে রাখতেই পারেন I

“ভৌগোলিক_সালানুক্রম”
*********************************

“ভৌগোলিক_সালানুক্রম” বাংলা ভাষায় এই প্রথম সাল অনুযায়ী ভৌগোলিক ঘটনাবলীর অনবদ্য সঙ্কলন I ভূগোলের জন্মলগ্ন থেকে সমসাময়িক কাল পর্যন্ত ঘটে যাওয়া বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য ঘটনাক্রম, বিভিন্ন ভৌগোলিকগানের জন্ম-মৃত্যু, তাদের আবিষ্কার, তত্বের প্রবর্তন, বিভিন্ন বই এর প্রকাশকাল সহ নামকরণ, বিভিন্ন শব্দের ব্যবহার ও প্রতিষ্ঠানের গঠণ ইত্যাদি একই স্থানে উপলব্ধ করাই এই ইবুকের মুল লক্ষ্য। ইবুকটি সংগ্রহ করুন এবং ভৌগোলিক জ্ঞানের পরিধির ব্যপ্তি ঘটিয়ে আনন্দ উপোভোগ করুন I

==========================

#সংকলক :- গোপাল মণ্ডল ও অরিজিৎ সিংহ মহাপাত্র

#প্রথম_প্রকাশ:- 01/05/2019

#প্রকাশক :- মিশন জিওগ্রাফি ইন্ডিয়া

#সোশালমিডিয়াপার্টনার:- ভূগোলিকা-BHUGOLIKA

“ভৌগোলিক সালানুক্রম” সংগ্রহ করুন এখানে ক্লিক করে



37. উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলির পেশাগত পার্থক্য নিরূপণ করো I
উত্তর> i) উন্নত দেশসমূহে শিল্পকর্ম, পরিবহন, পরিষেবামূলক দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ শ্রেণীর অর্থনৈতিক কার্যকলাপ অনুসৃত হয়; যেখানে উন্নয়নশীল দেশসমূহে কৃষিকার্য, মত্স্য শিকার, শিল্পকার্য ইত্যাদি প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণীর কার্যকলাপ লক্ষ্যনীয় I ii) উন্নত দেশে কাজের নিরপত্তা ও নিশ্চয়তার জন্য বেকারত্বের পরিমাণ কমপ যেখানে উন্নয়নশীল দেশে এর বিপরীত পরিস্থিতি প্রকট I iii) উন্নত দেশে পেশাগত মান উচ্চ হওয়ায় মাথাপিছু আয় বেশী, এক্ষেত্রে উন্নয়নশীল দেশগুলো অনেক পিছিয়ে রয়েছে I

38. উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলির জনসংখ্যা গঠনের পার্থক্য কী ?
উত্তর> i) উন্নয়নশীল দেশের জন্মহার, শিশু মৃত্যুহার ও পরনির্ভরশীল তরুণ গোষ্ঠীর হার অধিক, যেখানে উন্নত দেশগুলির জনসংখ্যায় ঐ তিনটি বৈশিষ্ট পরিমাপ কম I ii) উন্নয়নশীল দেশে অনুপ্রবেশ বেশী এবং জীবনযাত্রার মান পুষ্টিহার ও আয়ুষ্কাল কম; যেখানে উন্নত দেশগুলো এর বিপরীত বৈশিষ্ট বহণ করে I

39. উন্নত দেশের তুলনায় অনুন্নত দেশগুলিতে নারী থেকে পুরুষের সংখ্যা বেশী কেনো ?
উত্তর> i) নারীর ন্যূনতম সামাজিক মর্যাদা, ii) নারী শিশুর প্রতি অবহেলা ও অনিহা , iii) প্রাপ্তবয়স্ক প্রসূতি নারীর অপুষ্টি ও চিকিত্সার অভাব I iv) পুত্রসন্তানের উপর অধিক নিরাপত্তার আশ্বাস, v) অন্ধ ধর্মীয় পরলোকগত বিশ্বাস, vi) অপ্রাপ্তবয়সে বিবাহ প্রথা ইত্যাদি পরোক্ষ ও প্রত্যক্ষভাবে অনুন্নত দেশগুলিতে নারী থেকে পুরুষের সংখ্যা বৃদ্ধি করেছে I

40. উন্নত দেশগুলিতে নারীপুরুষ ব্যবধান কম কেনো ?
উত্তর> উন্নত দেশগুলিতে i) পুরুষের সমমান যুক্ত নারীর সম্মান, সামাজিক মর্যাদা ও সুযোগসুবিধা ভোগ করায়; ii) কণ্যা সন্তানের মৃত্যু হার কম হওয়ায়; iii) স্ত্রী শিক্ষার ব্যাপক প্রসারতা iv) প্রাপ্তবয়স্কে বিবাহ সম্পন্ন হওয়ায় v) কন্যাসন্তান পুত্রসন্তানের ন্যায় পালিত হওয়ার জন্য নারীপুরুষ ব্যবধান কম I যেমন – জার্মানিতে প্রতি হাজার পুরুষে নারী সংখ্যা 1052 জন, আমেরিকায় 1053 জন, জাপানে 1044 জন I

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!